• Home
  • Articles
  • Islamic :: Bangla
  • আবদুল গাফফার চৌধুরীর বক্তব্য ও তার প্রতিক্রিয়া

অবিশ্বাস্য সুসংবাদ !!!

কল্পনা করা যায় মুক্তিযুদ্ধের বিস্ফোরিত সময়ে ভারতের মাটিতে আশী লক্ষ উদ্বাস্তুর মধ্যে এক পাঞ্জাবী তরুণ? কল্পনা করা যায় ক'মাস পরে ইয়াহিয়া সরকারের ওয়ারেন্ট আর জামাতিদের কতল-হুংকারের মুখে পাকিস্তানের মাটিতে আণ্ডারগ্রাউণ্ডে লুকিয়ে সেই তরুণ নাপাক সৈন্যদের বর্বরতা তুলে ধরছে জাতির সামনে, - দু'দুটো উর্দু পত্রিকায় ছাপা হচ্ছে সেটা,? প্রকাশিত সেই সিরিজটা স্বাধীনতার পরে একত্র করে বই প্রকাশ হয়েছে "পদ্মা সুর্খ হ্যায়" ("রক্তলাল পদ্মা) নামে। সেই উর্দু বই অনুবাদ করেছি আমি, গত বই মেলায় এসেছে "অজানা একাত্তর - রক্তাক্ত পদ্মা" নামে। বইটা কেউ পৌঁছে দিয়েছিল আমাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে। আপনারা জানেন একাত্তরে আমাদের সহায়তাকারী বিদেশীদের প্রথম দফা রাষ্ট্রীয় সম্মাননা দেয়া হয়েছে ক'মাস আগে, ২য় দফা হবে অক্টোবরের শেষ দিকে। সেই তরুণ, আনোয়ার শাহিদ খান-এর মেইল পেলাম গতকাল - "উস্তাদজী, গতকাল ইসলামাবাদের বাংলাদেশ এমব্যাসী থেকে ফোন পেয়েছি - আমাকে বাংলাদেশ সরকারের তরফ থেকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে সামনে মাসে সেই রাষ্ট্রীয় সম্মাননা অনুষ্ঠানে যোগ দিতে"।

শাহিদ যেতে পারবে কি না জানিনা। ওর ভাই থেকে শুরু করে পরিবারের বিশাল অংশ আর্মিতে ব্রিগেডিয়ার কর্নেল ইত্যাদি। পাকিস্তানী আর্মী এখনো একাত্তরে ওদের গালে এখনো আমাদের বিশ্ব-কাঁপানো সশব্দ থাপ্পড় ভুলতে পারেনি, এখনো আমাদের পাঁচ আঙ্গুলের দাগ লাল হয়ে ফুটে আছে ওদের গালে, চিরকাল থাকবে।

দেখুন আমার সাইটে - "অজানা একাত্তর" !
 

Print